stir-torit-bol-o-oadhaner-dharona
WB-Class-8

স্থির তড়িৎ বল ও আধানের ধারণা

শ্রেণিঃ অষ্টম | বিষয়: বিজ্ঞান । অধ্যায় – স্পর্শ ছাড়া ক্রিয়াশীল বল (তৃতীয় পর্ব)


তোমরা কি কখনো লক্ষ্য করেছ যে চুল আঁচড়ানোর সময় শুকনো চুল চিরুনি দিয়ে বেশ কয়েকবার আঁচড়ানোর পরে চিরুনিটি যদি ছোট ছোট কাগজের টুকরোর কাছে নিয়ে আসা হয়, তাহলে দেখা যায় যে কাগজের টুকরোগুলি চিরুনির গায়ে আটকে যাচ্ছে! বা বলা যায় চিরুনিটি কাগজের টুকরোগুলোকে আকর্ষণ করছে।

চিরুনির গায়ে কাগজ আটকে যাচ্ছে [Credit – Mike Dunning/Getty Images]
এই আকর্ষণের কারণ হল চুলের সঙ্গে ঘর্ষণের ফলে চিরুনিতে উৎপন্ন স্থির তড়িৎ।

প্রাচীন কালের গ্রীক বিজ্ঞানীরা লক্ষ্য করেছিলেন যে অ্যাম্বার অর্থাৎ পাইন গাছের শক্ত আঠাকে সিল্কের কাপড় দিয়ে ঘষলে তা ছোট ছোট কাগজের টুকরো বা ওই জাতীয় কোন হালকা জিনিসকে আকর্ষণ করতে পারে। কিন্তু গ্রীক পন্ডিতরা ব্যাপারটি লক্ষ্য করলেও তাঁরা এবিষয়ে কোন গবেষণা করেননি। তাঁরা শুধু এটুকুই জানতেন যে ঘর্ষণের ফলে আকর্ষণ শক্তি সৃষ্টি হয়।

অনেক পরে সপ্তদশ শতাব্দীতে বিজ্ঞানী অটো ভন গেরিক এবিষয়ে গবেষণা করেন এবং প্রথম friction generator বা ঘর্ষণ জেনারেটর তৈরী করেন।

একটি বস্তুকে অন্য একটি বস্তু দ্বারা ঘর্ষণ করে তড়িৎ উৎপন্ন করাকে বলে তড়িতাহিতকরণ।

যে বস্তুতে এই তড়িৎ উৎপন্ন হয় তাকে বলে তড়িতাহিত বস্তু, এবং বস্তুর ওই অবস্থানকে বলে তড়িতাহিত অবস্থা।

ঘর্ষণের ফলে এই তড়িৎ উৎপন্ন হয় বলে একে ঘর্ষণজাত তড়িৎ বা ঘর্ষণজাত আধান বলা হয়।

আচ্ছা বলতো এই রূপ তড়িৎ কে “স্থির” কেন বলে?

এই তড়িৎ বস্তুতে আবদ্ধ থাকে এবং চলাচল করতে পারে না বলে একে স্থির তড়িৎ বলা হয়।

subscribe-jump-magazine-india

স্থির তড়িৎ সংক্রান্ত কিছু উদাহরণ

এই স্থির তড়িৎ উৎপন্ন হবার অনেক ঘটনা আমরা আমদের চারপাশে দেখতে পাই।

(i) কোন কাচের বস্তুকে সিল্ক বা উলের কাপড় দিয়ে ঘর্ষণ করলে এই স্থির তড়িৎ উৎপন্ন হয়।

(ii) আবার স্কুলের সরস্বতী পুজায় থার্মোকল কেটে মডেল বানানোর সময় ছুরি দিয়ে তা টুকরো করতে গিয়ে নিশ্চয়ই দেখেছ ওই থার্মোকল এর খুব ছোট কিছু টুকরো ছুরির গায়ে লেগে আছে। এর কারণ কিন্তু ঐ স্থির তড়িৎ।

(iii) নাইলন কাপড় দিয়ে তৈরী পোষাক আমরা অনেকেই ব্যবহার করি। এই পোষাক গা থেকে খোলবার সময় খেয়াল করলে দেখবে হালকা চিড়–চিড় শব্দ পাওয়া যায়। এর কারণও কিন্তু ঐ স্থির তড়িৎ। নাইলন পোষাকের সাথে আমাদের শরীরের চামড়ার ঘর্ষণে স্থির তড়িৎ সৃষ্টি হয়। ফলে চামড়া ও পোষাক একে অন্যকে আকর্ষণ করে। তাই পোষাক খুলতে গেলে শব্দ সৃষ্টি হয়।


অষ্টম শ্রেণির অন্য বিভাগ – বাংলা | ইংরেজি | গণিত | বিজ্ঞান

(iv) স্থির তড়িতের আর একটি উদাহরণ খুব সহজেই দেখা যায়। টিভি চালালে তার পর্দার গায়ে স্থির তড়িৎ জমা হয়। এই স্থির তড়িতের আকর্ষণে বাতাসে ভাসমান ধূলিকণা টিভির পর্দার গায়ে আটকে যায়। টিভি পর্দার একদম কাছে হাত নিয়ে গেলে আমরা এই স্থির তড়িৎ অনুভব করতেও পারি। দেখতে পাই ওই স্থির তড়িতের প্রভাবে আমাদের হাতের লোম খাড়া হয়ে ওঠে।

(v) বৃষ্টির সময় আমরা যে বজ্রপাত দেখতে পাই তা আসলে এই স্থির তড়িতের খুব শক্তিশালী এবং বিপদজনক এক প্রকাশ।

স্থির তড়িৎজনিত পরীক্ষার আদর্শ সময়

জলীয় বাষ্প তড়িতের পরিবাহী।

এই কারণে স্থির তড়িৎ সংক্রান্ত কোন পরীক্ষা করতে গেলে বস্তুগুলি শুষ্ক থাকার প্রয়োজন হয়। বস্তু গুলিতে জলীয় বাস্প থাকলে তড়িৎ সহজেই চলাচল করতে পারবে এবং পরীক্ষাধীন বস্তুতে তড়িৎ আবদ্ধ থাকবে না। এই কারণে বর্ষাকালের ভিজে আবহাওয়াতে স্থির তড়িতের পরীক্ষা ঠিকমত করা যায় না। শীতকালে আবহাওয়া শুকনো থাকে, তাই এইসব পরীক্ষা শীতকালে খুব ভালোভাবে করা যায়।

স্থির তড়িতের ব্যবহার

আমাদের দৈনন্দিন জীবনের বিভিন্ন কাজে স্থির তড়িৎ ব্যবহার করা হয়। উদাহরণ হিসাবে ধরা যায় প্রিন্টার এবং ফটোকপি মেশিনের কথা। এক্ষেত্রে ব্যবহৃত কালিতে স্থির তড়িৎ ব্যবহারের মাধ্যমে প্রিন্ট বা ফটোকপি তৈরী করা হয়। এছাড়া এয়ার ফিল্টার, পেইন্ট স্ত্রেয়ার প্রভৃতি যন্ত্রগুলিও স্থির তড়িৎ ব্যবহার করে কাজ করে।


এই লেখাটির সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। বিনা অনুমতিতে এই লেখা, অডিও, ভিডিও বা অন্য ভাবে কোন মাধ্যমে প্রকাশ করলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


তৃতীয় পর্ব সমাপ্ত। পরবর্তী পর্ব → স্থির তড়িৎ আধান

লেখিকা পরিচিতি

বিজ্ঞান স্নাতক এবং কম্পিউটার বিজ্ঞানে উচ্চ শিক্ষিতা নন্দিতা বসুর পেশা শিক্ষকতা। তিনি বই পড়তে বড় ভালোবাসেন। কাজের ফাঁকে, অবসরে, বাসে ট্রামে তো বটেই, শোনা যায় তিনি নাকি ঘুমিয়ে ঘুমিয়েও বই পড়তে পারেন।

এই লেখাটি থেকে উপকৃত হলে সবার সাথে শেয়ার করার অনুরোধ রইল।



এছাড়া,পড়াশোনা সংক্রান্ত যেকোনো বিষয়ের আলোচনায় সরাসরি অংশগ্রহন করতে যুক্ত হতে পারেন ‘লেখা-পড়া-শোনা’ ফেসবুক গ্রূপে। এই গ্রুপে যুক্ত হতে ক্লিক করুন এখানে।