Father's-Help-wb-class-10
Madhyamik

Father’s Help

শ্রেণি – দশম | বিষয়: English । Lesson: Father’s Help (Unit 1)


A Brief Introduction to the Author

Rasipuram Krishnaswami Iyer Narayanaswami or simply R.K.Narayan was born on 10th October 1906 in Madras. R.K.Narayan completed graduation from Maharaja College of Mysore in 1930 and he was one of the famous Indian writers who wrote in English. R.K.Narayan completed graduation from Maharaja College of Mysore in 1930. Some of his famous novels are “The Guide”, “Malgudi Days”, “The Man-Eater of Malgudi” etc. “Malgudi Days” depicts the facet of life in Malgudi, a fictitious city of South India. He achieved numerous awards during his literary career like “Sahitya Akademi Award” in 1958 for “The Guide”, “The Guide” brought him Filmfare Award for the Best Story. He got the “Padma Bhushan” award in 1964. He passed away on 13 May 2001.

R-K-narayan
R K Narayan at his work desk [Image credit – Indian Express]
This piece of prose is extracted from R.K.Narayan’s “Malgudi Days” published in 1943. R.K.Narayan was one of the famous Indian writers who wrote in English. Some of his famous novels are “The Guide”, “Malgudi Days”, “The Man-Eater of Malgudi” etc. “Malgudi Days” depicts the facet of life in Malgudi, a fictitious city of South India. This chapter depicts the naughty character of a young boy called Swaminathan who did not want to go to school.

Summary of Father’s Help (Unit 1)

Swami, the protagonist of the story, suddenly realized that it was Monday. He assumed that just by a moment it was Friday. But now it was Monday and he had to go to school. At nine o’clock, he told his mother that he did not want to go to school because he was having a serious headache. Swami’s mother agreed generously and told him to take a rest. At 9.30 am he should be present in the prayer hall of the school. But on that day he was lying on the bench at his mother’s room.

At the hit of the moment, Swami’s father came and asked him why he was not ready for the school? Then Swami replied that he had a headache and so he could not go to school. After that, Swami’s father told swami to get him to be dressed. His father advised him to stop wandering on Sunday and so he would be without a headache on Monday.

Swami knew his father’s nature. His father was very strict. So Swami told him that he could not go to school so late. Because there was a teacher named Samuel who scolded and punished those students who came late to school. Then Swami’s father replied as it was his fault he had to face the crisis though Swami should tell Samuel about his headache. Then Swami told him Samuel would definitely scold him as he was an angry man.

Then Swami’s father asked him why the students did not complain to the headmaster against Samuel’s arrogant behavior. Then Swami replied that even the headmaster was afraid of him due to his arrogance.

subscribe-jump-magazine-india

বাংলায় সারসংক্ষেপ (Unit 1)

গল্পের প্রধান চরিত্র স্বামী (Swami) একটি স্কুল পড়ুয়া ছেলে।

কোন এক সোমবার সকালে সে বিছানায় শুয়ে ছিল, ঘড়িতে তখন সময় ছিল সকাল নটা। প্রথমে সে মনে করেছিল যে সেই দিনটা রবিবার; তাই তার বিদ্যালয় ছুটি। কিন্তু খুব তাড়াতাড়ি তার ভুল ভাঙ্গে, সে বুঝতে পারে যে আজ সোমবার এবং তাকে বিদ্যালয়ে যেতে হবে।

কিন্তু স্বামী খুব সহজেই একটা অজুহাত তৈরি করে নেয়। সে তার মা-কে বলে যে তার মাথা ব্যাথা করছে। স্নেহময়ী মা স্বামীর কথা বিশ্বাস করে নেন, এবং তাকে বাড়িতে থাকার অনুমতি দেন। এমনি করে আরো ৩০ মিনিট কেটে যায়। সকাল 9:30-এর সময় যখন তার বিদ্যালয়ের প্রার্থনা সভায় থাকার কথা তখনও সে তার মায়ের ঘরের তক্তাপোষে শুয়ে ছিল।

এমন সময় ঘরে স্বামীর বাবা প্রবেশ করেন।

তিনি স্বামীকে বিছানায় শুয়ে থাকতে দেখে অবাক হয়ে যান এবং তাকে বিদ্যালয়ে না যাবার কারণ জিগ্যেস করেন। স্বামী তাকে তার মাথাব্যাথার কথা জানালে তিনি তা অবিশ্বাস করেন এবং স্বামীকে বিদ্যালয়ে যাবার আদেশ দেন। এর সাথে তিনি স্বামীকে এটাও বলেন যে রবিবার বেশি ঘোরাফেরা করলে সোমবার মাথা যন্ত্রণা হবেই।


দশম শ্রেণির অন্যান্য বিভাগগুলি পড়ুন –ভৌতবিজ্ঞান | গণিত | জীবনবিজ্ঞান

স্বামী তার বাবার রাশভারী স্বভাবের সাথে পরিচিত ছিল; সে যখন দেখে যে তার মাথা যন্ত্রণার অজুহাত নষ্ট হয়ে গেল; তখন সে আর একটি অজুহাত তৈরি করে। সে তার বাবাকে জানায় যে সে দেরি করে বিদ্যালয়ে যেতে পারবে না।

তার বাবা তাকে বলেন যে স্বামীর দোষেই দেরি হয়েছে, সুতরাং তাকে বিদ্যালয়ে যেতেই হবে।

স্বামী বলে –যদি সে দেরি করে বিদ্যালয়ে যায় তার বিদ্যালয়ের শিক্ষক তার সম্পর্কে খারাপ ভাববেন।

বাবা বলেন – স্বামী যেন শিক্ষককে বলেন যে তার মাথা ব্যাথা হয়েছিল তাই তার বিদ্যালয়ে আসতে দেরি হয়েছে।

স্বামী বলে – আমি যদি শিক্ষককে এটা বলি তবে তিনি আমাকে বকবেন।

বাবা স্বামীর কাছে শিক্ষকের নাম জানতে চান।

স্বামী জানায় যে তার শিক্ষকের নাম স্যামুয়েল।

বাবা জানতে চান – স্যামুয়েল কি সবাইকে বকেন?

স্বামী জানায় যে স্যামুয়েল একজন অতন্ত্য রাগি মানুষ। বিশেষ করে যারা ক্লাসে দেরি করে আসে, তাদের উপর তিনি খুব রেগে যান। এই কারনেই স্বামী স্যামুয়েল স্যারের ক্লাসে দেরি করে যেতে চায় না।

বাবা তখন স্বামীর কাছে জানতে চান যে যদি স্যমুয়েল এতই রাগি হন, তাহলে সে হেডস্যারের কাছে স্যামুয়েল স্যারের ব্যাপারে জানায় না কেন।

এর উত্তরে স্বামী বলে যে হেড স্যারও স্যমুয়েল স্যার-কে ভয় পান।

MMT_Jump

Words to Remember

  • Headache – মাথাব্যথা [Synonyms- Worry, Dilemma, Hassle, Annoyance]
  • Nonsense- অর্থহীনতা/ আজেবাজে কথা [Synonyms- Absurdity, Applesauce, Poppycock]
  • Scold- তিরস্কার করা [Synonyms- Reprimand, Impel, Rebuke]
  • Afraid- ভীত [Synonyms- Terrified, Frightened, Fearful, Pavid]
  • Shudder – কাপুনি [Synonyms – Shake, Tremble, Quiver]
  • Wailed – উচ্চ স্বরে দুঃখ প্রকাশ করা [Synonyms – Howl, Cry]

Read Next part – Father’s Help Unit 2 & 3


About the Writer

Mrs. Astidipa Bose Goswami has completed her Masters in English literature. She loves reading books and cooking new dishes.

 

এই লেখাটি থেকে উপকৃত হলে সবার সাথে শেয়ার করার অনুরোধ রইল।



এছাড়া,পড়াশোনা সংক্রান্ত যেকোনো বিষয়ের আলোচনায় সরাসরি অংশগ্রহন করতে যুক্ত হতে পারেন ‘লেখা-পড়া-শোনা’ ফেসবুক গ্রূপে। এই গ্রুপে যুক্ত হতে ক্লিক করুন এখানে।

lekha-pora-shona-facebook-group

Leave a Reply