পরীক্ষা প্রস্তুতি

MCQ প্রশ্নে ভালো নম্বর! কিভাবে?



MCQ অর্থাৎ Multiple Choice Questions ছাত্রছাত্রীদের কাছে অতি পরিচিত একটি নাম।

বর্তমান শিক্ষা ব্যাবস্থায় শুধুমাত্র মাধ্যমিক বা উচ্চ মাধ্যমিক নয়, সর্ব ভারতীয় প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষাতেও গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে MCQ ধরণের প্রশ্ন। এই প্রবন্ধে আজ আমরা দেখবো MCQ প্রশ্নের ক্ষেত্রে ভালো নম্বর পেতে কি ভাবে প্রস্তুতি নেওয়া প্রয়োজন।


[আরো পড়ুন – উচ্চ মাধ্যমিকে রসায়ন কিভাবে পড়বো]

MCQ প্রশ্ন কি?

MCQ কথার অর্থ Multiple Choice Questions। এই ক্ষেত্রে একটি প্রশ্নের সাধারণত চারটি করে উত্তর দেওয়া থাকে, পরীক্ষার্থীকে সেই চারটির মধ্যে সঠিক উত্তর নির্বাচন করতে হয়।


[আরো পড়ুন – মাধ্যমিক পরীক্ষায় কিভাবে নম্বর বাড়ানো যায়?]

পরীক্ষকেরা MCQ কেন পছন্দ করেন?

MCQ ধরণের প্রশ্ন, ছোট অথবা বড় প্রশ্নের থেকে অনেকটাই আলাদা হয়। এতে পরীক্ষকেরা ছাত্রছাত্রীদের দুটি সমস্যার মুখোমুখি ফেলতে পারেন।

  • MCQতে সাজেশন মেলে না
  • MCQতে নোটস মুখস্থ করে লাভ হয় না

তাই যে বিষয়টির উপর প্রশ্ন করা হচ্ছে সেই বিষয়ে পরীক্ষার্থীর পরিষ্কার ধারণা আছে কিনা তা বোঝা যায়।


বিজ্ঞাপন



কিভাবে MCQ ধরণের প্রশ্নে ভালো ফল করা সম্ভব?

ধাপে ধাপে এর উত্তর খোঁজা যাক।

1. পড়ার বিষয়গুলি বুঝে পড়া

এই পয়েন্টটি শুধু MCQ ধরণের প্রশ্নের জন্য প্রযোজ্য তা কিন্তু নয়, এটা বড় বা ছোট প্রশ্নের জন্যও সমান ভাবে গুরুত্বপূর্ণ। কোন প্রশ্নের উত্তর যদি না জানা থাকে কিন্তু বিষয়টি সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা থাকে সেক্ষেত্রে সেই প্রশ্নটির উত্তর লেখা সম্ভব।  এর উল্টোটা হলে কিন্তু ‘ উদোর পিণ্ডি, বুদোর ঘাড়ে’ হবার সম্ভবনা থাকে।

JUMP whats-app subscrition

2. পুরো সিলেবাস খুঁটিয়ে পড়া

MCQতে ভালো ফল করতে চাইলে পরীক্ষার পাঠ্যক্রম খুঁটিয়ে পড়তেই হবে। কারণ প্রশ্ন আসতে পারে যে কোন অংশ থেকেই। যেমন –

মাইটোসিস বিভাজনের কোন দশায় নিউক্লীয় পর্দার পুনরাবির্ভাব ঘটে?

ক) টেলফেজ খ) মেটাফেজ গ) প্রোফেজ ঘ) অ্যানাফেজ

এই প্রশ্নটির সঠিক উত্তর লিখতে গেলে কোশ বিভাজনের সবকটি ধাপ সম্পর্কে সুষ্ঠু ধারণা থাকা একান্ত প্রয়োজন।  



3. আন্দাজে ঢিল না মারা

উত্তর না জানা থাকলে ছাত্রছাত্রীরা অনেক সময়ে আন্দাজের উপর ভরসা করে যেকোন একটা উত্তর চিহ্নিত করে আসে। এর বদলে, যদি উত্তরটির logical point অর্থাৎ চারটির মধ্যে কোনটা সঠিক সেটা ভাবলে লুকানো উত্তর খুঁজে পাওয়া সহজ হয়। যেমন –

নীচের কোনটি গ্রিনহাউস গ্যাস নয়?

ক) Co2 খ) N2 গ) N2O ঘ) CFC

ধরা যাক, এই প্রশ্নটির উত্তর কোনটি হবে তা সঠিক ভাবে বোঝা যাচ্ছে না।কিন্তু Co2 আর CFC যে গ্রিনহাউস গ্যাস তা প্রায় আমরা সবাই জানি। তা হলে N2 (ডাই নাইট্রোজেন) আর N2O (নাইট্রাস অক্সাইড) এই দুজনের মধ্যেই সঠিক উত্তর লুকিয়ে আছে

আর একান্তই উত্তর না দিতে পারলে, আন্দাজে উত্তর দেওয়ার রাস্তা তো সবসময়েই খোলা। তবে নেগেটিভ মার্কিং  থাকলে কিন্তু আন্দাজের রাস্তা না নেওয়াই ভালো।

4. প্রচুর প্র্যাকটিস করা

দ্বিতীয় উপায়কে আরো শক্তিশালী করতে চাইলে, প্রচুর MCQ অভ্যাস করতে হবে। অর্থাৎ সিলেবাস খুঁটিয়ে পড়া হয়েছে কিনা, তা জানার জন্য অধ্যায় ভিত্তিক MCQ অভ্যাস করা ভীষণভাবে প্রয়োজন। আর যারা নানান প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষার (competitive exam) এর প্রস্তুতি নিচ্ছ, তাদের জন্য এই পয়েন্টটি সর্বাপেক্ষা গুরুত্বপূর্ণ।


[আরো পড়ুন – পরীক্ষায় ভালো রেজাল্ট চাই – কিন্তু কিভাবে?]

তাহলে একটা ব্যাপার পরিষ্কার ভাবে বোঝা যাচ্ছে যে MCQ তে ভালো ফলাফল করা খুব একটা কঠিন নয়, এর জন্য চাই পরিকল্পনা, অভ্যাস ও উপস্থিত বুদ্ধি।

এই লেখাটি থেকে উপকৃত হলে সবার সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না কিন্তু।


lekha-pora-shona-group

Leave a Reply